Blog Details

বরগুনায় স্কুলছাত্রীকে অপহরণ চেষ্টাকারীকে গণপিটুনী দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

বরগুনায় স্কুলছাত্রীকে অপহরণ চেষ্টাকারীকে গণপিটুনী দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

লোকবেতার ডেস্ক : বরগুনায় স্কুলছাত্রীকে অপহরণচেষ্টার অভিযোগে সোহেল (৪০) নামে এক ব্যক্তিকে গণপিটুনি দিয়েছে এলাকাবাসী।

মঙ্গলবার (০৫ এপ্রিল) সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বরগুনা সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাইনুল ইসলাম।বর্তমানে তাকে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

তিনি জানান, সোমবার রাত ৮টার দিকে বরগুনা পৌর শহরের বটতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সোমবার রাতেই স্কুলছাত্রীর মা সদর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

স্কুল ছাত্রীর মা জানান, সোহেল তাদের বাসার কাছেই ভাড়া থাকতেন। তাই তাদের সঙ্গে পরিচয়। গত মঙ্গলবার স্কুল থেকে ফেরার পথে সোহেল তার মেয়েকে জানান, তার মা তাকে বাসায় নিয়ে যেতে বলেছেন। এ কথা বলে তাকে একটি অটোরিকশায় তোলেন। কিছুক্ষণ পর অটোরিকশা অন্য রাস্তায় যাওয়া শুরু করলে মেয়েটির সন্দেহ হয় ও সোহেলের সঙ্গে বাগবিতণ্ডা করে। অটোরিকশা চালক বিষয়টি বুঝতে পেরে রিকশা থামালে মেয়েটি পালিয়ে আসে।

ওই স্কুলছাত্রীর মা আরও জানান, বিষয়টি তারা স্থানীয় কাউন্সিলর জাহিদুল করিম বাবু , সাবেক কাউন্সিলর মনিরুজ্জামান জামাল  এবং সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর হোসনে আরা চম্পাকে জানান। তারা সোহেলকে আটক করে পুলিশে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। এরপর সোমবার রাত ৮টার দিকে স্থানীয়রা সোহেলকে পিটিয়ে পুলিশে দেয়।

এ বিষয়ে কাউন্সিলর বাবু বলেন, সোহেল মাদকাসক্ত। ইয়াবা বিক্রি ও ধর্ষণের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সোহেল বলেন, আমি বটতলা দিয়ে একাই হেঁটে হেঁটে বাজারে যাচ্ছিলাম। হঠাৎ ২০-৩০ জন কিশোর আমাকে মারধর শুরু করে। আমার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ মিথ্যা।  

তিনি আরো বলেন, কিছুদিন আগে আমার মেয়েকে অপহরণ করে ধর্ষণ করে প্রভাবশালীদের কিছু বখাটে কিশোর। সে ঘটনায় আমি মামলা করায় আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে। আর যে মেয়েটিকে নিয়ে আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছে সে আমার মেয়ের ক্লাসফ্রেন্ড।  

বরগুনা সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাইনুল ইসলাম জানান, সোহেলকে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। স্কুলছাত্রীর মা লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। তদন্ত করে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

%d bloggers like this:

developed by:Md Nasir