বরগুনায় জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন আগামীকাল

বরগুনায় জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন আগামীকাল

বরগুনায় জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন আগামীকাল

লোকবেতার ডেস্ক : দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর আগামীকাল ১৭ জুলাই অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বরগুনা জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন। আর এ সম্মেলনকে ঘিরে নেতাকর্মীরা শুরু করেছেন নানামুখী কার্যক্রম। জেলা জুড়ে বইছে উৎসবের আমেজ।

ইতোমধ্যে সম্মেলনকে কেন্দ্র করে বরগুনা শহর জুড়ে নেতাকর্মীদের ফেস্টুন, ব্যানার ও পোস্টারে পরিপূর্ণ। প্রতিদিনই মোটরসাইকেল শোডাউন করে পদপ্রত্যাশী ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা জানান দিচ্ছেন গোটা বরগুনাকে। তখন শোনা যায় স্লোগানে স্লোগানে কাঙ্খিত নেতার নাম।

যদিও সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের পদ যেন সোনার হরিণ। আর এগিয়ে থাকা পদ প্রত্যাশী প্রার্থীরা তাদের স্বপ্ন ছুঁই ছুঁই ভাব। থেমে নেই শীর্ষ পদের জন্য লবিং, তদবির ও দৌড়ঝাঁপ।

সবমিলিয়ে তবুও ছাত্রলীগ কর্মীদের মাঝে বিরাজ করছে এক ধরনের পাওয়া না পাওয়ার আতঙ্ক। তবে কোন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার আতঙ্ক নয়, সম্মেলন যেন উৎসব মুখর পরিবেশের মধ্য দিয়ে হয় এমনটাই প্রত্যাশা বরগুনাবাসীর।

এদিকে, জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলনকে সামনে রেখে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জুবায়ের আদনান অনিক ও সাধারণ সম্পাদক তানভির হুসাইনের নেতৃত্বে সম্মেলন প্রস্তুত এর জন্য সকল কার্যক্রম চলমান রয়েছে। বর্তমানে বরগুনা পৌর শহরের টাউনহলে মঞ্চ সাজানোর কাজ চলছে।

ইতোমধ্যে, ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সংসদ’র দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা উপ তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক মো. আবদুর রশিদ রাফির হাতে সরাসরি ও অনলাইনে সভাপতি পদে ৩২ জন ও সাধারণ সম্পাদক পদে ৩১ জন মনোনয়নপত্র ক্রয় করে দাখিল করেছেন। এর মধ্যে কোন কোন প্রার্থী দুটি পদেই মনোনয়নপত্র ক্রয় করে দাখিল করেন।

এবিষয়ে বরগুনা জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তানভীর হোসেন জানান, জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলনকে কেন্দ্র করে বর্ণাঢ্য আয়োজন চলছে। সবকিছু ঠিক থাকলে নির্ধারিত তারিখেই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

তিনি আরো জানান, ইতোমধ্যে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদ প্রত্যাশীরা মাঠে কাজ করে যাচ্ছেন। কেন্দ্র সৎ, যোগ্য, মার্জিত ও শিক্ষিত ব্যক্তিকেই যথাযথ স্থান দিবেন।

বরগুনা জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলনকে নিয়ে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির কর্মসংস্থান বিষয়ক উপ-সম্পাদক খাদিমুল বাশার জয় জানান, নির্ধারিত তারিখ অনুযায়ী সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

তিনি আরো জানান, যারা ছাত্রলীগের দুর্দিনে মাঠে থেকেছে, নিজের জীবনকে বাজি রেখে আন্দোলন সংগ্রামে সরাসরি অবস্থান নিয়েছে, শিক্ষার্থী তথা শিক্ষাঙ্গনকে সুসজ্জিত করতে নিরলস কাজ করে গেছেন। এমন মেধাবী, সৎ, যোগ্য, সাধারণ শিক্ষার্থী ও কর্মীদের মাঝে গ্রহণযোগ্য প্রার্থীদেরকেই নির্বাচিত করা হবে বলে আমি বিশ্বাস করি।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর যুবায়ের আদনান অনিককে সভাপতি ও তানভীর হোসাইনকে সাধারণ সম্পাদক করে পূর্ণাঙ্গ কমিটি করার জন্য অনুমোদন দেওয়া হয়। এ কমিটির অনুমোদনের ১০ মাস পর ২০১৫ সালের ২৪ জুলাই ১৭১ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করে বরগুনা জেলা ছাত্রলীগ। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ থেকে বরগুনা জেলা ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটির মেয়াদ ২০১৬ সালের ২৪ জুলাই পর্যন্ত আরও ১ বছরের জন্য বাড়িয়ে দেওয়া হয়। যদিও গঠনতন্ত্র অনুসারে কমিটির মেয়াদ ১ বছর থাকলেও পেরিয়ে গেছে সাতটি বছর। এর মধ্যে হয়নি কোনো সম্মেলন ও নতুন কমিটি। বছরের পর বছর অপেক্ষায় থেকে হতাশ হয়ে পড়েন পদ প্রত্যাশী ছাত্রনেতারা।

Leave a Reply

%d bloggers like this:

developed by:Md Nasir